ব্যাংক লোন মওকুফের আবেদন নতুন নিয়মে

ঋণগ্রহীতার মৃত্যু ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ঋণ গ্রহীতার ব্যাংক লোনের সুদের অংশ বা অংশবিশেষ মওকুফ করা যেতে পারে। এই লেখাটিতে ব্যাংক লোন মওকুফের আবেদন কিভাবে করবেন ও আবেদন পত্র লেখার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করা হবে।

যদি কোন ঋণ গ্রহীতা ঋণ গ্রহণ করে মৃত্যুবরণ করে কিংবা প্রাকৃতিক কোন দুর্যোগের কারণে নিঃস্ব হয়ে যায় তাহলে উক্ত ব্যাংকের কাছে লোনের সুদের অংশ মওকুফের জন্য আবেদন করতে পারবে। এই লেখাটিতে কিভাবে ব্যাংক লোন মওকুফের আবেদন পত্র লিখবেন তা দেখানো হবে।

Table of Contents

ব্যাংক লোন মওকুফের আবেদন

২০২২ সালের ২১শে এপ্রিল বাংলাদেশ ব্যাংক ঋণের সুদ মওকুফ সংক্রান্ত বিআরপিডি (BRPD) ৬ জারি করেছে। এর মধ্যে উল্লেখ করা আছে ব্যাংকগুলো বিভিন্ন কারণে গ্রহীতাদের ঋণের সুদ মওকুফ করতে পারে। তবে এক্ষেত্রে ব্যাংক কিছু নিয়ন্ত্রণ বহির্ভূত কারণে উল্লেখ করেছে। কারণগুলো হলঃ

  • ঋণগ্রহীতার মৃত্যু
  • নদী ভাঙ্গন
  • প্রাকৃতিক দুর্যোগ
  • মহামারী ও মড়ক
  • দুর্দশাজনিত কারণ
  • বন্ধপ্রকল্পের ব্যাংক ঋণ
  • ভূমিকম্প বা টর্নেডো

বাংলাদেশ ব্যাংকের ২১/৪/২০২২ তারিখের বিআরপিডি ৬ অনুযায়ী, এই সকল নিয়ন্ত্রণ বহির্ভূত কারণে ব্যাংক ঋণের সুদের অংশ অথবা অংশবিশেষ মওকুফ করা যেতে পারে। এক্ষেত্রে পর্যাপ্ত কারণ উল্লেখ করে ব্যাংকের কাছে একটি আবেদন পত্র জমা দিতে হবে।

পরবর্তীতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ বিভিন্নভাবে “বিষয়” যাচাই-বাছাই করবে। যদি আপনার দেওয়া তথ্যগুলো সঠিক প্রমাণিত হয় তাহলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষর ইচ্ছাতে ব্যাংক লোনের সুদের অংশ বা অংশবিশেষ মওকুফ করা হতে পারে।

সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেলঃ

ব্যাংক লোন মওকুফের আবেদন পত্র

ব্যাংক লোন সুদের অংশ বা অংশবিশেষ মওকুফের জন্য সরাসরি ব্যাংক ম্যানেজার বরাবর একটি আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। আবেদনপত্রের মূল বিষয় ঋণ মওকুফের জন্য আবেদন। আপনার Bank Account Number ও সমস্যা উল্লেখ করে আবেদন পত্রটি লিখুন।

লোন মওকুফের আবেদন পত্র লেখার ক্ষেত্রে অবশ্যই স্পষ্টভাবে আপনার সমস্যার কথা উল্লেখ করতে হবে। আপনার সমস্যা যদি যথার্থ না হয় তাহলে আপনার আবেদনটি রিজেক্ট করে দেওয়া হবে। অবশ্যই আবেদনপত্র সুন্দর ও স্পষ্টভাবে লিখতে হবে।

আবেদন পত্রের নমুনাঃ

তারিখ: ০৮/২/২০২৪

বরাবর

ব্যাংক ম্যানেজার

বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংক

বাগেরহাট, খুলনা।

বিষয়: ঋণ মওকুফের জন্য অনুরোধ

জনাব, সবিনয় নিবেদন এই যে আমি মোহাম্মদ সালাহ উদ্দিন, আমার ব্যাংক হিসাব নাম্বার ০১২৩৪৫৬৭৮৯। গত ৫ মাস আগে আমি আপনার ব্যাংক থেকে ১,৫০,০০০ টাকা ঋণ নিয়েছিলাম। এরপর থেকে আমি নিয়মিত কিস্তি পরিশোধ করেছি। কিন্তু দুর্ঘটনা বসত নদী ভাঙনের কারণে আমাদের ভিটেবাড়ি সবকিছু বিলীন হয়ে গিয়েছে। এই অপ্রত্যাশিত সমস্যার কারণে সঠিক সময়ে কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে পারছি না।

আমি একজন কৃষক, আমার ভিটে বাড়ির জমিতে ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে কৃষি চাষ করেছিলাম। আমার মাসিক আয় ১২,০০০ টাকা। কিন্তু এই সমস্যার কারণে বর্তমানে আমার আয় কমে গেছে যার কারণে আমি আমার পরিবারের মৌলিক চাহিদা মেটাতে হিমশিম খাচ্ছি। আমি এই পরিস্থিতি সামলানোর যথাসাধ্য চেষ্টা করছি কিন্তু সময়মতো ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে পারছি না।

অতএব জানাবেন নিকট আকুল আবেদন এই যে, আমার বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে ঋণ মওকুফ করলে আপনার নিকট চির কৃতজ্ঞ থাকব।

নিবেদক

নাম: মোহাম্মদ সালাহ উদ্দিন

ঠিকানা: বাগেরহাট, খুলনা

মোবাইল নং: 01600000000


বিঃদ্রঃ আবেদনপত্রটি আপনাদের ঠিকানা ও আপনাদের সকল তথ্য দিয়ে সঠিকভাবে লিখবেন। এখানে ভিত্তিহীন তথ্য দিয়ে আবেদন পত্রটি সাজানো হয়েছে।

সুদ মওকুফের আবেদন পত্র লেখার নিয়ম

সুদ মওকুফের আবেদন পত্র লেখার জন্য প্রথমে আপনাকে নির্দিষ্ট কারণ উপস্থাপন করতে হবে। নির্দিষ্ট কারণ ছাড়া কখনোই ব্যাংক সুদ মওকুফের আবেদনটি গ্রহণ করবে না। এরপরে স্পষ্ট ভাষায় একটি আবেদনপত্র লিখে জমা করতে হবে।

সু-স্পষ্ট ভাষায় কিভাবে সুদ মওকুফের জন্য একটি আবেদন পত্র লিখবেন এই সম্পর্কে আমরা পূর্বে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। উক্ত আবেদন পত্রটি দেখে আপনার যথাযথ কারণ ও আপনার ঠিকানা উল্লেখ করে আবেদনপত্রটি আপনার ব্যাংক ম্যানেজারের বরাবর জমা করুন।

একটি আদর্শ আবেদনপত্রে কি কি থাকা প্রয়োজন?

বাংলা আবেদনপত্র লেখার কিছু নিয়মাবলী আছে। আপনি যদি উক্ত নিয়মাবলী গুলো না মেনে আবেদনপত্র লিখেন তাহলে আপনার আবেদন পত্রটি সম্পন্ন হবে না। সাধারণত একটি আদর্শ আবেদনপত্র যে সকল তথ্য থাকা প্রয়োজন।

  • আবেদনের তারিখ
  • প্রাপকের নাম ঠিকানা ও পদবী
  • আবেদনের বিষয়
  • সম্ভাষণ (জনাব / স্যার / ম্যাডাম ইত্যাদি)
  • স্পষ্ট ভাষায় আবেদনের বিষয়ে উল্লেখ করা
  • প্রেরকের নাম ঠিকানা ও পদবী, মোবাইল নাম্বার ইত্যাদি
  • সু-স্পষ্ট ভাষায় আবেদন পত্র লিখতে হবে

উপরে উল্লেখিত নিয়ম গুলো মেনে একটি আদর্শ আবেদন পত্র/ দরখাস্ত লিখতে হবে। আপনি যে সকল বিষয়ের জন্য আবেদনপত্র বা দরখাস্ত লিখেন, একই পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে। বাংলা আবেদনপত্র লেখার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারেন।

FAQs

ব্যাংকের ঋণ মওকুফের আবেদন কিভাবে করব?

ব্যাংকের লোন মওকুফের আবেদন করার জন্য প্রথমে ব্যাংক ম্যানেজার বরাবর একটি ঋণ মওকুফের জন্য আবেদন পত্র লিখতে হবে। এরপরে ব্যাংকের নিকটস্থ ব্রাঞ্চে উপস্থিত হয়ে ব্যাংক ম্যানেজার বরাবর আবেদন পত্রটি জমা দিতে হবে।

কিভাবে ব্যাংক লোন মওকুফ হয়?

ব্যাংকের লোন মওকুফ হওয়ার একমাত্র মাধ্যম হলো ২১/৪/২০২২ তারিখের বিআরপিডি ৬ অনুযায়ী নির্দিষ্ট ক্যাটাগরিতে লোন গ্রহীতা ক্ষতিগ্রস্ত হলে, ব্যাংক ম্যানেজার বরাবর ব্যাংকের লোন মওকুফের আবেদন পত্র জমা দিতে পারবে।

Similar Posts

2 Comments

  1. Apel Mahmood says:

    Really it’s a great post. Will be helpful for all peoples.

    1. আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ, গুরুত্বপূর্ণ নতুন আপডেট গুলো পাওয়ার জন্য আমাদের টেলিগ্রাম গ্রুপে জয়েন থাকতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *